ঢাকা ০৪:৪২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




পাকিস্তানে চলমান বন্যায় মৃত্যু বেড়ে ১৪৮৬

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ১১:৩৯:১২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২৭০ বার পঠিত
কালের ধারা ২৪, অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
বিজ্ঞাপন
print news

পাকিস্তানে চলমান বন্যায় মৃত্যু বেড়ে ১৪৮৬

পাকিস্তানে চলমান বন্যায় এ পর্যন্ত মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪৮৬ জনে। বৃহস্পতিবার দেশটির সরকারের প্রকাশিত সর্বশেষ তথ্যে এমনটি দেখা গেছে।

বিজ্ঞাপন

বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিভিন্ন স্থানে বন্যার পানি কমতে শুরু করলেও এখনও হাজার হাজার মানুষ খোলা আকাশের নিচে রাত্রিযাপন করছে। বর্ষাকালীন রেকর্ড বৃষ্টি ও উষ্ণ তাপমাত্রায় দেশটির উত্তরাঞ্চলের পর্বতগুলোর হিমবাহ গলে নেমে আসা পানিতে পাকিস্তানজুড়ে ভয়াবহ বন্যা দেখা দেয়।

দেশটিতে ২২ কোটি মানুষের মধ্যে প্রায় তিন কোটি ৩০ লাখ বন্যার কবলে পড়ে এবং ঘরবাড়ি, ফসল, রাস্তা, সেতু, যানবাহন ও গবাদিপশু ভেসে গিয়ে ৩০ বিলিয়ন ডলার ক্ষয়ক্ষতি হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

দেশটির জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, দেশজুড়ে বন্যায় ৫৩০ শিশুসহ মৃতের সংখ্যা ১৪৮৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

বন্যার তাণ্ডবে সিন্ধু প্রদেশে প্রায় লাখো মানুষ ঘরবাড়ি হারিয়েছে। পানি থেকে বাঁচতে এদের অনেকেই উঁচু মহাসড়কগুলোর পাশে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছে। ঘরহারা এসব মানুষের জন্য তাবু কেনা হচ্ছে বলে সিন্ধুর মুখ্যমন্ত্রী সৈয়দ মুরাদ আলী শাহ বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন।

তবে এখনও এক তৃতীয়াংশ গৃহহীনের কোনো তাবু নেই এবং তারা খোলা আকাশের নিচে রাত্রিযাপন করছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

পাকিস্তান সরকার ও জাতিসংঘ এ বন্যার জন্য বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনকে দায়ী করেছে।




ফেসবুকে আমরা







x

পাকিস্তানে চলমান বন্যায় মৃত্যু বেড়ে ১৪৮৬

প্রকাশিত : ১১:৩৯:১২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
বিজ্ঞাপন
print news

পাকিস্তানে চলমান বন্যায় মৃত্যু বেড়ে ১৪৮৬

পাকিস্তানে চলমান বন্যায় এ পর্যন্ত মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪৮৬ জনে। বৃহস্পতিবার দেশটির সরকারের প্রকাশিত সর্বশেষ তথ্যে এমনটি দেখা গেছে।

বিজ্ঞাপন

বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিভিন্ন স্থানে বন্যার পানি কমতে শুরু করলেও এখনও হাজার হাজার মানুষ খোলা আকাশের নিচে রাত্রিযাপন করছে। বর্ষাকালীন রেকর্ড বৃষ্টি ও উষ্ণ তাপমাত্রায় দেশটির উত্তরাঞ্চলের পর্বতগুলোর হিমবাহ গলে নেমে আসা পানিতে পাকিস্তানজুড়ে ভয়াবহ বন্যা দেখা দেয়।

দেশটিতে ২২ কোটি মানুষের মধ্যে প্রায় তিন কোটি ৩০ লাখ বন্যার কবলে পড়ে এবং ঘরবাড়ি, ফসল, রাস্তা, সেতু, যানবাহন ও গবাদিপশু ভেসে গিয়ে ৩০ বিলিয়ন ডলার ক্ষয়ক্ষতি হয় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

দেশটির জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, দেশজুড়ে বন্যায় ৫৩০ শিশুসহ মৃতের সংখ্যা ১৪৮৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

বন্যার তাণ্ডবে সিন্ধু প্রদেশে প্রায় লাখো মানুষ ঘরবাড়ি হারিয়েছে। পানি থেকে বাঁচতে এদের অনেকেই উঁচু মহাসড়কগুলোর পাশে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছে। ঘরহারা এসব মানুষের জন্য তাবু কেনা হচ্ছে বলে সিন্ধুর মুখ্যমন্ত্রী সৈয়দ মুরাদ আলী শাহ বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন।

তবে এখনও এক তৃতীয়াংশ গৃহহীনের কোনো তাবু নেই এবং তারা খোলা আকাশের নিচে রাত্রিযাপন করছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

পাকিস্তান সরকার ও জাতিসংঘ এ বন্যার জন্য বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনকে দায়ী করেছে।